ত্রিভুজ প্রেমের সম্পর্ক, টসের মাধ্যমে হলো সমাধান!

Amader AtraiAmader Atrai
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০১:৩৫ PM, ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

আমাদের আত্রাই ডেস্কঃ

একই যুবকের সঙ্গে প্রেম দুই যুবতীর। আর কে তাঁকে বিয়ে করবেন এ নিয়েই শুরু হয় ঝামেলা। শেষ পর্যন্ত সেই ত্রিভুজ প্রেমের সুরাহা করতে এগিয়ে এল গ্রাম পঞ্চায়েত। টসের মাধ্যমে ঠিক হলো কে ওই যুবককে বিয়ে করবেন।  শুনতে অবাক লাগলেও ভারতের কর্ণাটকে এমনটাই ঘটেছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, ঘটনাটি কর্ণাটকের সকলেশপুর গ্রামের। ২৭ বছর বয়সী ওই যুবকের সঙ্গে গত বছর পাশের গ্রামেরই একটি মেয়ের পরিচয় হয়। এরপর দুজনে সম্পর্কে জড়ায়। কিন্তু ছয় মাস  আগে অন্য একটি মেয়ের প্রেমে পড়েন ওই যুবক। এরপর দুজনের সঙ্গেই প্রেম করতে থাকেন যুবকটি । তবে ঝামেলা শুরু হয় যখন ওই যুবককে এক প্রেমিকার সঙ্গে ঘুরতে দেখেন তাঁরই এক আত্মীয়। কিন্তু যুবকের বাড়ির লোক সেই সম্পর্ক মেনে নিতে চায়নি, উল্টো যুবকের অন্যত্র বিয়ে দেওয়ার ব্যাপারে মনস্থির করেন। এ খবর পেয়ে দুই মেয়ের বাড়ির লোকই ওই যুবকের বাড়িতে আসেন। তখনই বিষয়টি সবার সামনে আসে। এরপর গোটা গ্রামে বিষয়টি জানাজানিও হয়ে যায়। শেষ পর্যন্ত বিবাদ মেটাতে আসরে নামে গ্রামের পঞ্চায়েত।

কয়েক দিন আগেই প্রথম সালিশি সভা ডাকা হয়, সেখানে ওই যুবককে এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি চুপ থাকেন। এ ঘটনার পর দুজনের মধ্যে একজন আবার বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেন। যদিও শেষ পর্যন্ত বেঁচে যান। এরপর গত শুক্রবার ফের পঞ্চায়েত সালিশি সভা ডাকে। সেখানেই পঞ্চায়েতের সদস্যরা জানান, টসের মাধ্যমে ওই যুবকের কনে ঠিক করা হবে। আর তাতে যাতে তিন পরিবারই রাজি হয়, এ ব্যাপারে তাঁদের সম্মতিও নেওয়া হয়।

জানা গেছে, এর পরই নাকি টসের মাধ্যমে ঠিক হয় প্রথম প্রেমিকাকেই বিয়ে করবেন ওই যুবক। অনেকের মতে, যুবক নিজেই প্রথম যুবতীকে পছন্দের কথা জানিয়ে দেন। শেষ পর্যন্ত অবশ্য প্রথম প্রেমিকার সঙ্গেই বিয়ে হয় ওই যুবকের।  যুবকের অপর প্রেমিকা হাসিমুখেই বিষয়টি মেনে নিলেও ওই যুবককে তাঁর এই কাজের জন্য ভর্ৎসনাও করেন।

সূত্র: আজকের পত্রিকা

 246 total views,  4 views today

আপনার মতামত লিখুন :